Copy
BAS wishes everyone a very Happy Bengali New Year!!!                    View this email in your browser
Bengali Association Singapore (BAS) Quarterly e-Newsletter
1st April 2017
সবাইকে জানাই নববর্ষের অগ্রিম শুভেচ্ছা 
 আঁকাঃ সুজাতা ঘোষ
New Members
এসো হে নবীন
BAS Welcomes all the New Members and their Families

Mrs.  Anushua Rudra & Family
Mr.    Ashish Chandhok & Family
Mr.    Ayan Mukherji & Family
Mrs.  Debarati Chatterjee & Family
Mr.    Devraj Kumar & Family
Mr.    Dipto Basu Roy & Family
Mr.    Jayanta Basu & Family
Mrs.  Paromita Basu & Family
Mr.    Ritoban Banerjee & Family
Mr.    Saswata Mukherjee & Family
Mr.    Satyam Das & Family
Mr.    Shiraj Choudhury & Family
Mr.    Soumya Majumdar & Family
Mr.    Sourabh Mallick & Family
Mr.    Sumit Kumar Bose & Family
Mr.    Sushobhan Baruah & Family
Mr.    Tapan Kumar Ghosh & Family
Ms.   Ujjaini Ghosh & Family

 
News & Announcements
AGM
AGM | Date- 16th April 2017 | Venue- SINDA Auditorium
Annual General Meeting (AGM) of Bengali Association Singapore is planned to be held on the 16th of April 2017 at SINDA Auditorium from 10 am. All the members are requested to attend the AGM.
The office bearers and members of the 2016 Management Committee will present the audited accounts of the year 2016 and will step down.   
Faces of MC 2017
MC 2017 Office Bearers
From left to right : Priyajit Ghosh (Hon. Treasurer), Tanima Dutta (Hon. Secretary), Sowmya Mitra (President) & Raja Chowdhury (Vice President) 
The nomination date for the new BAS MC for 2017 was closed on Friday 10th March after two extensions. Four nominations were received within the closing date. As there were no other nominations within the closing date, the four nominees were by default elected to MC 2017. We welcome the MC 2017 members.
 
Member's Contribution
নব নব রূপে এসো প্রাণে
 আঁকাঃ অনামিকা দত্ত (Anny)
Upcoming Events
নববর্ষ উৎসব
Naboborsho | Date- 22nd April 2017 | Venue- Khoo Auditorium
দেখতে দেখতে আবার এসে গেল নতুন বছর; এসে গেল ১৪২৪ সাল। নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে প্রতি বছরের মত এবারও বেঙ্গলি অ্যাসোসিয়েশন, সিঙ্গাপুর আয়োজন করেছে নববর্ষ উৎসবের। আগামী ২২শে এপ্রিল, শনিবার Khoo Auditorium এ তিনটি অসাধারন অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে নতুন বছরকে বরণ করে নেবে বেঙ্গলি অ্যাসোসিয়েশন, সিঙ্গাপুর এর সদস্যরা।
নতুন বছর নিয়ে আসে নতুন স্বপ্ন, নতুন আশা। নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে মেতে উঠি আমরা। কিন্তু প্রকৃতিও যে মেতে ওঠে নতুন বছরের আগমনে তা ভুললে চলবে না। আর তাই আমরা দেখি পুরো বসন্ত কাল ধরে প্রকৃতি নিজেকে সাজিয়ে তোলে নানান রঙে - ফুলে, পাতায়। বসন্তের বিভিন্ন গান ও নাচের মাধ্যমে নতুন বছরকে স্বাগত জানিয়ে আমাদের পরিবেশনা - "নব আনন্দে জাগো"। এছাড়া থাকবে শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের লেখা অবলম্বনে জয়ন্ত বসুর নির্দেশনায় আদ্যন্ত মজার শ্রুতিনাতক "ভূত ভবিষ্যত"। আর থাকবে বিভিন্ন সময়ের নানা ধরনের নানা জনপ্রিয় গানের সংকলন নিয়ে মনোজ্ঞ গানের অনুষ্ঠান "শিকড়"।
খাওয়া দাওয়া বাঙ্গালীর যে কোনো অনুষ্ঠানের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ। সেই ঐতিহ্য বজায় রেখে সদস্যদের জন্য থাকবে "High Tea"। বাংলা বছরের এই প্রথম অনুষ্ঠানে আসুন সবাই একসাথে হাতে হাত মিলিয়ে নতুন বছরকে বরণ করে নিই। 

High Tea শুরু ঠিক 5 টায়; অনুষ্ঠান শুরু ঠিক সাড়ে 6 টায়।  
Member's Contribution
ব্যস্‌-রে-BAS... আরেব্বাস...
'নব আনন্দে জাগো আজি নব রবি কিরণে... ' বাংলা ক্যালেন্ডারের বর্ষশুরুর পরোয়ানা এ প্রবাসে বেশ স্পষ্ট টের পাই আমরা। পূব থেকে পশ্চিম, উত্তর থেকে দক্ষিণে বয়ে চলে বঙ্গ সংস্কৃতির চর্চা। নাচ-গান-নাটকের মহড়ায় বাঙালী সানন্দে মাতে - এই অবসরে রসনার তৃপ্তিও হয় নানা সুস্বাদু খাদ্যে আর মিষ্টান্নতে। ক্রমশ: মহড়াতে না আসতে পারার জন্যও ততোধিক উপলক্ষ্য সৃষ্টি হয়, ফলত: আবারও মাতামাতির পরিবেশ। বলাবাহুল্য শেষের এই যে মেতে ওঠা, তাতে মিষ্টত্ব কমে, টক-ঝালের আধিক্য যে বেশী তা সহজেই অনুমেয়। এ সম্পর্কিত অভিজ্ঞতার ঝুলি বর্তমান লেখিকার এমন ভারী, বিদ্যাসাগর মশাই যদি আজ জীবিত থাকতেন, তাঁর অসাধ্য ছিল এ ঝুলি উত্তোলনে সাহায্যের হাত প্রসারিত করার। কিন্তু সব কথার সেরা কথা যিনি বলতেন, তিনি মনে  করিয়েছেন, 'ভাল জিনিষ কম হয় বলেই তা ভাল, নইলে নিজেরই ভীড়ের ঠেলায় হয়ে যেত মাঝারি', তাই ঐ টক-ঝাল কারণ-অকারণের ভেলায় বসে বছরের শুরুতে প্রায় তিনটে মাস নেহাৎ মন্দ যে কাটে না তার প্রকৃষ্ট উদাহরণ 'কি, গো, কিছু করাবে না এবার' বা 'এমা:, করাও না গো কিছু' র ফল্গুধারা। ধন্যবাদ তোমাদের, যারা সাথী ছিলে 'কিছু করানোর' তরণীতে।

আসলে, মাঝে মাঝে অপ্রাচুর্য বা অভাববোধটা টের পাওয়াটাই জীবনটাকে বুঝতে যে শেখায়, সে বিষয়ে মতান্তরের অবকাশ কোথায়! না:, 'আরেব্BAS এর পাতায়  দর্শন আওড়াতে আজকের কলম ধরা .. থুড়ি আইপ্যাডের নোটে অঙ্গুলিস্পর্শ করা নয়, ঠিক একবছর আগে কিছু লেখার যে অনুরোধ  রাখতে পারিনি, তা ফিরে এল, 'এবারে তো রিহার্সালের চাপ নেই' what's app এর message এ। এ সত্য অস্বীকার করার উপায় নেই, তাই একটু চর্বিতচর্বণ। জাকারবার্গের বদান্যতায়, জাকারবার্গের অনুগ্রহে, জাকারবার্গের উৎসাহে আজ আমরা সকলেই বেশ 'লিখতে' পারি। সকলেই কবি নয়, কেউ কেউ কবি, তেমনি কখনো কখনো জাকারবার্গ সৃষ্ট প্রাণীকুলের অনেকেই লেখক, অনেকেই কবি, শিল্পী ইত্যাদি। জাকারবার্গ প্রতিভার উন্মেষে, প্রতিভার বিকাশে, প্রতিভার পরিস্ফুটনে এক বিরাট ভূমিকা নিয়েছে, একথা অনস্বীকার্য। বিভিন্ন চ্যানেলের দৌলতে যেমন সাধারণ মানুষের মধ্যে মাইকের সামনে কথা বলার আড়ষ্টতা অন্তর্হিত, ঠিক তেমনি আজকের দিনে লেখনীতেও স্বত:স্ফূর্ততা বেশ স্পষ্ট। ভাব-ভাষা-শব্দচয়ন দেখে বেশ আশ্চর্য লাগে, মোটামুটি সবাই কিন্তু 'লিখন শিল্পে' পারদর্শী - সে বৈঠকখানা ঘরের টেবিলের বর্ণনাই হোক বা কৃতজ্ঞতাজ্ঞাপণ। নিত্যদিনের নানাবিধ চাপের মাঝে সময় বার করে এমন প্রয়াস, সত্যিই প্রশংসনীয়। সেদিন দেখলাম 'মন্দবাসা' নামে একটা নতুন সিনেমা হয়েছে, 'মেয়েবেলা' শব্দটা বোধহয়  আজ অতি আভিধানিক, নতুন শব্দসৃষ্টির এই মেলায় তাই যুক্ত হল 'লিখন শিল্প' এই মূহুর্তে। 'চলুক ..চলুক' ---- রক্তকরবীর পাগলা বিশুই হোক আমাদের অনুপ্রেরণা। চলুক virtual জগতে সংস্কৃতি চর্চা, এগিয়ে চলুক আরেব্BAS, গৌরবের হোক এর দ্বিতীয় .... তৃতীয় .....চতুর্থ...অন্তহীন  বছর, অক্ষয় হয়ে এগিয়ে চলুক কৌশিক (কুন্ডু) আর প্রসূনের (সাহা) এই প্রয়াস আর বিশ্বরূপ সোম তথা বিশুবাবুর কারিগরি সহায়তায় প্রাণ পাওয়া এই পত্রিকা।
 
আরেব্BAS এর নামকরণ কিন্তু বেশ হয়েছে। আমাদের BAS এ, আরেব্বাস বলার মত ঘটনার সমারোহ সদাই,  তাই এই আধুনিক সন্ধির মৌলিকত্বকে সাধুবাদ দিতেই হয়। পত্নী কর্তৃক পতিদেবের প্রশংসা দূর্লভ হলেও, exception proves the rule চিরন্তন সত্য, তাই যার যেটুকু প্রাপ্য তাকে বঞ্চিত করা নয়-- Good Job দেবাশিস (তরফদার)।

বিদায় আছে বলেই স্বাগতম শব্দের মিষ্টত্ব মন কাড়া, 'হে বন্ধু বিদায়' বলার ক্ষণে আন্তরিক কামনা ----
পরিজন-বন্ধুজনের খুশীতে, তাদের সাফল্যে, তাদের আনন্দে যে colloquial শব্দটা বংজনের মুখ থেকে নি:সৃত হয় সেই 'আরেব্বাস' বলার মত যেন হয় সকলের আগামী - প্রার্থনা আর শুভেচ্ছা .. হে সুজন, সকলের জন্য। 
- চৈতালী তরফদার
If your email has truncated this newsletter:
Click here to continue reading in browser
Past Events
BAS এর সরস্বতী পূজো
Saraswati Pujo | Date- 1 February 2017 | Venue- Royal Palm, Clarke Quay, The Central
গত ১লা ফেব্রুয়ারি, ক্লার্ক কী, দ্য সেন্ট্রালের রয়্যাল পাম এ সরস্বতী পুজোর আয়োজন করেছিল বেঙ্গলি এ্যাসোসিয়েশন সিঙ্গাপুর (BAS)। BAS এর event calender এ বছরের প্রথম অনুষ্ঠান - আর তার পুরো সু্যোগ নিতে সদস্যরা সবাই ঝলমলে সাজে সেজে একসাথে মেতে উঠেছিলেন পুজোর আনন্দে। নিয়ম মেনে হল পূজো, হল পুষ্পাঞ্জলি। আর এক্কেবারে যারা কচি, মা-বাবার হাত ধরে তারাও হাজির 'হাতে খড়ি’ দিতে। পূজোর পৌরোহিত্য করলেন BAS এরই সদস্য রঞ্জন চক্রবর্তী।
পূজো শেষ হওয়ার পর সরস্বতী স্তোত্রবন্দনা গান করে শোনালেন সংযুক্তা সেন আর শ্রুতিনাটক পরিবেশন করলেন বয়ঃজ্যেষ্ঠ সদস্য জয়ন্ত বসু ও তাঁর স্ত্রী চিত্রলেখা বসু। আর সবশেষে খিচুড়ি-বেগুনি-চাটনি-পায়েসের ভুরিভোজ দিয়ে শেষ হল সেদিনকার অনুষ্ঠান।

Picture Gallery
খোল দ্বার খোল, লাগল যে দোল.....
Basantotsab | Date- 12th March 2017 | Venue- Myra's @ The Stadium

প্রবাসে যে কোনো অনুষ্ঠানই যেন হয়ে ওঠে নিজেদের ঘরের অনুষ্ঠান। জানা-অজানা, পরিচয়-অপরিচয়ের বাধা কাটিয়ে সবাই হয়ে ওঠে নিজেদের ঘরের লোক। Myra's@The Stadium-এ ঠিক এই ছবিটাই দেখা গেল BAS এর বসন্তোৎসবে, গত ১২ই মার্চ। লাল-নীল-বেগুনী-কমলা-সবুজ - বিভিন্ন রঙের আবীরের ছিল অঢেল আয়োজন। আবীর খেলায় অংশগ্রহণ করেন উপস্থিত সকল সদস্য। কিছুক্ষণের মধ্যেই চেনা মুখ হয়ে ওঠে অচেনা। লাল-নীল-সবুজের নকসায় ঢাকা পড়ে যায় অতি পরিচিত চেহারা। নাচ ছাড়া বসন্তোৎসব অসম্পূর্ণ। আর তাই Kris এর 1000 watt sound system এ চলতে থাকা গানের সাথে সাথে কোমর দুলিয়ে নাচতে নেমে পড়ে একে একে অনেকেই। Myra's এর air-conditioned restaurant এর সামনের বাঁধানো উঁচু বেদী নিমেষে পালটে চেহারা নেয় dance floor এর। নাচ শেষ হতেই সদস্যদের কয়েকজন সুরু করে খালি গলায় গান। দেবাশিস, ঋত্বিকা, তীর্থ এরা সবাই যোগ দেয় গানে - ভরিয়ে তোলে Myra's@The Stadium এর প্রাঙ্গণ। নাচে, গানে, গল্পে, রঙ খেলায় একটা দিনের জন্য মেতে ওঠে BAS এর সদস্যরা। 

Picture Gallery

Member's Contribution
রঙ যেন মোর মর্মে লাগে...
 আঁকাঃ অনামিকা দত্ত (Anny)
Member's Contribution
নববর্ষের আগমনী
বসন্ত এসে গেছে— এসেছে ফাগুন
চৈত্র মাসে 'বসন্ত বিলাপ'—                           
                       পলাশের বুকে লেগেছে আগুন!                     
                             
            এর পর বাঙ্গালীর প্রতীক্ষা—               
                                             নববর্ষের আগমন।
            বৈশাখের প্রথম দিবসে,
                                           করবো তারে বরণ।।
            নবদিগন্তের নতুন আলোকে,                       
            সুসজ্জিত  হয়ে নতুন পোশাকে।                  
            নব জাগরণে হবে বর্ষবরণের আবাহন।।

            প্রতি বছর ঘুরে আসে এই দিনটি ।                 
            এটা হ’ল পরম্পরা, বাঙ্গালীর কৃষ্টি।।
            'চৈত্র-সেল' জাঁকিয়ে বসেছে রাস্তার দুধারে।
            পয়লা বৈশাখের 'নববর্ষ' আগত দুয়ারে।।     

            নতুন নতুন পরিকল্পনা পুরাতন কে ঘিরে।
                      তারই প্রস্তুতি চলেছে —
                                        সেই সঙ্গে হালখাতার।
        নতুন পঞ্জিকা খুঁজি, কিম্বা বাংলা ক্যালেণ্ডার।
                                         
                   নববর্ষের গানের পশরা,                           
                   নববর্ষ-সংখ্যা পত্র-পত্রিকা।                       
                   তারই আয়োজন চলছে দিনরাত,                                      
                   ব্যস্ত সকল লেখক-লেখিকা।।                       

                 বাঙ্গালীর পাতে নতুন 'মেনু ',                           
                                দিতে গালভরা নাম-                                      
              মিষ্টির পদেও থাকবে নতুনত্বের ছোঁয়া,             
                 সে-সব ভেবেই, কপালে জমছে ঘাম।            

   বাংলা ১৪২৪ সন কে করি সাদর আমন্ত্রণ। 
   নববর্ষের আনন্দ যজ্ঞে সবার রইলো নিমন্ত্রণ।।
 
- সুনীল কুমার সাহা                 
BAS' Society Contribution
BAS' contribution to the society continues...
Our ladies donated prasadi saris to Ramkrishna Mission for distribution among the needy. We are glad to note that Ramkrishna Mission has agreed to take care of the distribution as per our wish. 
A note of acknowledgement form Ramkrishna Math & Ramkrishna Mission (HQ).
Credits & Thanks
Overall Concept & Design
Prasun Saha; Koushik Kundu
Title "আরেব্‌BAS" by
Debashis Tarafdar
Title "আরেব্‌BAS" Artwork Design
Biswaroop Som
Content Plan & Writing
Koushik Kundu; 
Photo Credit
Koushik Kundu
Event Posters
Biswaroop Som; Abhishek Choudhury; Jayanta Basu
Support & Motivation
Bengali Association Singapore Members, Advertisers, Sponsors & Well wishers
 

BAS 2017 Membership Dues

Family Membership
$120.00
(Pujo Overhead is payable separately as min of $150)
Single Membership
$60.00
(Pujo Overhead is payable separately as min of $75)
Sr. Citizen Membership
Single- $16.00 | Couple- $32.00
(Pujo Overhead is payable separately as min of $50 & $100 respectively)
Website
Facebook
https://twitter.com/twitt_BAS
Instagram
Email
Copyright © 2017 Bengali Association Singapore, All rights reserved.
 
For any Feedback on this Newsletter, Please write to:
mc@bas.sg

Want to change how you receive these emails?
You can update your preferences or unsubscribe from this list
 
*Published & Circulated by Bengali Association Singapore MC 2016 on behalf of MC 2017*






This email was sent to <<Email Address>>
why did I get this?    unsubscribe from this list    update subscription preferences
Bengali Association Singapore · SINDA Building 1 Beatty Road · Singapore 209943 · Singapore

Email Marketing Powered by Mailchimp